Saturday, September 23, 2017
Banner Top
জীবিত হজযাত্রীকে মৃত দেখিয়ে প্রতিবেদন : ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেলেন আখাউড়া থানার ওসি
Banner Content

জীবিত এক হজযাত্রীকে পুলিশ প্রতিবেদনে মৃত দেখানোর ঘটনায় হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া থানার ওসি মোশাররফ হোসেন তরফদার।
সোমবার এ বিষয়ে শুনানি শেষে বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাকে অব্যাহতির আদেশ দেন।
একই সঙ্গে ভুক্তভোগী আজাদ হোসেন ভূঞার হজে যাওয়ার ক্ষেত্রে যাবতীয় বাধা দূরীকরণে ধর্মমন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার। ওসির পক্ষে ছিলেন শাহরিয়া কবির বিপ্লব। রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এম খালেদ ও মো.কায়সার জাহিদ ভূঁইয়া।
বাদীপক্ষের আইনজীবী মো. কায়সার জাহিদ ভুইয়া বলেন, ওসিকে সতর্ক করে দিয়ে আদালত তাকে অব্যাহতি দিয়েছেন। মো. আজাদ হোসেনের হজে যাওয়ার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়ে আবেদন নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন। ফলে আজাদের হজে যেতে আইনগত বাধা নেই। আজাদের হজে যাওয়ার সম্ভাব্য দিন ২৭ জুলাই বলে জানান তিনি।
তিনি জানান, ২০ জুন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে পুলিশ প্রতিবেদনে তাকে মৃত বলে দেখতে পাওয়া যায়। পরে তিনি এ বিষয়ে রিট দায়ের করেন। এরপর ১৭ জুলাই সোমবার আদালত ওসিকে তলব করে রুল জারি করেন। আদেশে ২৩ জুলাই হাইকোর্টে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।
রুলে পুলিশ প্রতিবেদনে জীবিত ব্যক্তিতে মৃত দেখানো কেন বেআইনি হবে তা জানতে চাওয়া হয়। এতে স্বরাষ্ট্র, ধর্ম, আইজিপি, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এসপি ও আখাউড়া থানার ওসিকে এক সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়। এ আদেশ অনুসারে রোববার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া থানার ওসি মোশাররফ হোসেন তরফদার হাইকোর্টে হাজির হন।
নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে ওসির আবেদনের পর এ বিষয়ে সোমবার শুনানির নির্দেশ দিয়ে ওই ব্যক্তির জীবিত থাকার পক্ষে লিখিত আকারে যথাযথ তথ্য দাখিল করতে বলেন আদালত।

0 Comments

Leave a Comment

সব খবর (সব প্রকাশিত)